কিভাবে কাটবে আমাদের রমজান? (প্রথম কিস্তি)

আমরা জানি, রমজান মাস বছরের সেরা মাস এবং অতীব বরকতময় । তাই আমাদের উচিত এই মাসকে ভিন্নভাবে গুরুত্ব দেওয়া। আমার রমজান কিভাবে চলবে সে নিয়ে একটি পরিকল্পনা তৈরি করা। ধারাবাহিক ভাবেই আমরা সেই আমলগুলোর কথা উল্লেখ করবো ইনশাআল্লাহ।

১. اَلصِّيَامُ (সাওম আদায় করা)
রমযান মাসের প্রথম এবং প্রধান কাজ হলো সাওম আদায় করা। কোরআন-হাদীসে সাওমের গুরুত্ব ও ফজিলত সম্পর্কে বহু আলোচনা রয়েছে। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তায়ালা বলেন:
يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا كُتِبَ عَلَيْكُمُ الصِّيَامُ كَمَا كُتِبَ عَلَى الَّذِينَ مِنْ قَبْلِكُمْ لَعَلَّكُمْ تَتَّقُونَ.
অর্থ: “হে মুমিনগণ, তোমাদের উপর সিয়াম ফরয করা হয়েছে, যেভাবে ফরয করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর। যাতে তোমরা তাকওয়া অবলম্বন কর।” (সুরা বাকারা ১৮৩)

فَمَنْ شَهِدَ مِنْكُمُ الشَّهْرَ فَلْيَصُمْهُ وَمَنْ كَانَ مَرِيضًا أَوْ عَلَى سَفَرٍ فَعِدَّةٌ مِنْ أَيَّامٍ أُخَرَ يُرِيدُ اللَّهُ بِكُمُ الْيُسْرَ وَلَا يُرِيدُ بِكُمُ الْعُسْرَ وَلِتُكْمِلُوا الْعِدَّةَ وَلِتُكَبِّرُوا اللَّهَ عَلَى مَا هَدَاكُمْ وَلَعَلَّكُمْ تَشْكُرُونَ .
অর্থ: “সুতরাং তোমাদের মধ্যে যে ব্যাক্তি এই মাসটিতে উপস্থিত হবে, সে যেন সিয়াম পালন করে। আর যে অসুস্থ হবে অথবা সফরে থাকবে তবে অন্যান্য দিবসে সংখ্যা পূরণ করে নেবে। আল্লাহ তোমাদের সহজ চান এবং কঠিন চান না। আর যাতে তোমরা সংখ্যা পূরণ কর এবং তিনি তোমাদেরকে যে হিদায়াত দিয়েছেন, তার জন্য আল্লাহর বড়ত্ব ঘোষণা কর এবং যাতে তোমরা শোকর কর।” (সুরা বাকারা: ১৮৫)
হাদীসে আল্লাহর রাসূল (সা:) রোজার বিশেষ ফজীলতের ঘোষণা দিয়েছেন। তন্মধ্য হতে কয়েকটি নিম্নে উল্লেখ করা হলো।
عَنْ أَبِى هُرَيْرَةَ رضى الله عنه قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ -صلى الله عليه وسلم كُلُّ عَمَلِ ابْنِ آدَمَ يُضَاعَفُ الْحَسَنَةُ عَشْرُ أَمْثَالِهَا إِلَى سَبْعِمِائَةِ ضِعْفٍ قَالَ اللَّهُ عَزَّ وَجَلَّ إِلاَّ الصَّوْمَ فَإِنَّهُ لِى وَأَنَا أَجْزِى بِهِ يَدَعُ شَهْوَتَهُ وَطَعَامَهُ مِنْ أَجْلِى لِلصَّائِمِ فَرْحَتَانِ فَرْحَةٌ عِنْدَ فِطْرِهِ وَفَرْحَةٌ عِنْدَ لِقَاءِ رَبِّهِ. وَلَخُلُوفُ فِيهِ أَطْيَبُ عِنْدَ اللَّهِ مِنْ رِيحِ الْمِسْكِ
অর্থ: “আবূ হুরায়রা (রা:) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন নবী (সা:) বলেছেন: “মানব সন্তানের প্রতিটি নেক কাজের সওয়াব দশ গুণ থেকে সাতশ’ গুণ পর্যন্ত বাড়িয়ে দেয়া হয়। মহান আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ “কিন্তু রোযা আমারই জন্য এবং আমি নিজেই এর প্রতিফল দান করবো। বান্দাহ আমারই জন্য নিজের প্রবৃত্তিকে নিয়ন্ত্রণ করেছে এবং পানাহার পরিত্যাগ করেছে।”
রোযাদারের জন্য দু’টি আনন্দ রয়েছে। একটি তার ইফতারের সময় এবং অপরটি তার প্রতিপালক আল্লাহর সাথে সাক্ষাতের সময়। রোযাদারের মুখের দুর্গন্ধ আল্লাহ তা’য়ালার কাছে মিশকের সুগন্ধির চেয়েও অধিক সুগন্ধময়।”

২. اَلْقِيَامُ (তারাবীহ-র সালাত)
রমযান মাসে দ্বিতীয় প্রধান ইবাদত হলো কিয়ামুল লাইল (তারাবীহ-র সালাত)।
عَنْ أَبِى هُرَيْرَةَ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم قَالَ مَنْ قَامَ رَمَضَانَ إِيمَانًا وَاحْتِسَابًا غُفِرَ لَهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِهِ (رواه مسلم)
অর্থ: “আবূ হুরায়রা (রা:) থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সা:) বলেছেনঃ যে ব্যক্তি রমজানে ঈমান এবং ইহতিসাব এর সহিত রাত্রি জাগরণ করল তার পিছনের সমস্ত গুনাহ ক্ষমা করে দেওয়া হয়।”

‘ক্বিয়ামুল লাইলের’ (তারাবীহ) এর বিধান কি?
রমজানের ‘ক্বিয়ামুল লাইল’ (তারবীহ) একটি গুরুত্বপূর্ণ সুন্নাত। হাদীসে ইরশাদ হয়েছে:
حَدَّثَنَا النَّضْرُ بْنُ شَيْبَانَ قَالَ قُلْتُ لِأَبِي سَلَمَةَ بْنِ عَبْدِ الرَّحْمَنِ حَدِّثْنِي بِشَيْءٍ سَمِعْتَهُ مِنْ أَبِيكَ سَمِعَهُ أَبُوكَ مِنْ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لَيْسَ بَيْنَ أَبِيكَ وَبَيْنَ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَحَدٌ فِي شَهْرِ رَمَضَانَ قَالَ نَعَمْ حَدَّثَنِي أَبِي قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ إِنَّ اللَّهَ تَبَارَكَ وَتَعَالَى فَرَضَ صِيَامَ رَمَضَانَ عَلَيْكُمْ وَسَنَنْتُ لَكُمْ قِيَامَهُ
অর্থ: “নজর ইবনে শাইবান বলেন আমি আবু সালামা ইবনে আবদুর রাহমানকে বললাম, আমাকে তুমি রমজান মাস সম্পর্কে এমন একটি হাদীস শুনাও যা তুমি তোমার পিতার নিকট থেকে শুনেছ এবং তোমার পিতা সরাসরি রাসূলুল্লাহ (সা:) এর থেকে শুনেছেন, যেন তোমার পিতা এবং রাসূলুল্লাহ (সা:) এর মাঝখানে কোন ভায়া মাধ্যম না থাকে। তিনি বললেন হ্যা! আমার পিতা আমাকে বলেছেন যে, রাসূলূল্লাহ (সা:) ইরশাদ করেছেন: নিশ্চয়ই আল্লাহ (সুব:) রমজানের সিয়ামকে ফরজ করেছেন আর আমি তোমাদের জন্য রমজানের কিয়ামকে (তারাবীহকে) সুন্নত করেছি।”
এই হাদীস থেকে বুঝা গেল যে, তারাবীহের সালাত রাসূল (সা:) কতৃক ঘোষিত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিধান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

slieder

Featured Posts
May 2018
M T W T F S S
    Jun »
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031  
সর্বসত্ত্ব সত্বাধীকারী- শায়খ আফতাব উদ্দিন ফারুক Ⓒ